দি ক্রাইম ডেস্ক: বিশ্ব নাগরিকত্ব সূচকে ১৫৭টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান রয়েছে ১২১ নম্বরে। এতে নাগরিক সুবিধার বিভিন্ন বিষয় বিবেচনায় নিয়ে করা ১০০ স্কোরের মধ্যে বাংলাদেশের অর্জন ৪৫ দশমিক ৫।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ‘সিএস পার্টনারস’ সূচকটি তৈরি করেছে, যা প্রতিবেদন আকারে নিজেদের ওয়েবসাইটেও প্রকাশ করেছে।

বিনিয়োগের বিনিময়ে বিভিন্ন দেশে নাগরিকত্ব পাইয়ে দিয়ে নিরাপদ আবাস সৃষ্টিতে সরকারের পক্ষে পরামর্শক ও মার্কেটিং ফার্ম হিসেবে কাজ করে থাকে সিএস পার্টনারস।

২০২৪ সালের প্রতিবেদন তৈরিতে শুধু বিভিন্ন দেশের পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ের ওপর নির্ভর না করে পাঁচটি বিষয় বেছে নিয়ে সেগুলো বিশ্লেষণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

নাগরিকত্বের মান নির্ণয়ে সিএস পার্টনারসের বেঁছে নেয়া পাঁচটি বিষয় হল- নিরাপত্তা ও সুরক্ষা, অর্থনৈতিক সুযোগ, জীবনমানের স্তর, বৈশ্বিক চলাচল ও অর্থনৈতিক স্বাধীনতা।

সূচকে বিষয়ভিত্তিক অবস্থানে দেখা যায়, নিরাপত্তা ও সুরক্ষায় ১২২তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশে। এ ছাড়া অর্থনৈতিক সুযোগে ৫৭, জীবনমানের স্তরে ১২০, বৈশ্বিক চলাচলে ১২৬ এবং অর্থনৈতিক স্বাধীনতায় বাংলাদেশ ১২৩তম স্থান পেয়েছে।

এবারের সূচকে ৪৯ দশমিক ৫ স্কোর নিয়ে বাংলাদেশের প্রতিবেশী ভারতের অবস্থান ১০৩তম, যেখানে ৩৮ দশমিক ১ স্কোর নিয়ে পাকিস্তান রয়েছে ১৪৫তম অবস্থানে।

সূচকের সবার উপরে আছে আয়ারল্যান্ড, যার স্কোর ৮৬ দশমিক ৬। ৮৬ স্কোর নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে সুইজারল্যান্ড, ৮৪ দশমিক ৬ স্কোর নিয়ে তৃতীয় ডেনমার্ক, ৮৪ স্কোর নিয়ে অস্ট্রেলিয়া চতুর্থ এবং ৮২ দশমিক ৭ স্কোর নিয়ে আইসল্যান্ড রয়েছে পঞ্চম অবস্থানে।

২৭ স্কোর নিয়ে সূচকে একেবারে নিচে ১৫৭তম অবস্থান পেয়েছে যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেন। তার ঠিক উপরে রয়েছে যুদ্ধসংকুল দেশ সিরিয়া, যার স্কোর ২৯। তার উপরে আছে সুদান ও আফগানিস্তান।

দি ক্রাইম ডেস্ক: বিশ্ব নাগরিকত্ব সূচকে ১৫৭টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান রয়েছে ১২১ নম্বরে। এতে নাগরিক সুবিধার বিভিন্ন বিষয় বিবেচনায় নিয়ে করা ১০০ স্কোরের মধ্যে বাংলাদেশের অর্জন ৪৫ দশমিক ৫।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ‘সিএস পার্টনারস’ সূচকটি তৈরি করেছে, যা প্রতিবেদন আকারে নিজেদের ওয়েবসাইটেও প্রকাশ করেছে।

বিনিয়োগের বিনিময়ে বিভিন্ন দেশে নাগরিকত্ব পাইয়ে দিয়ে নিরাপদ আবাস সৃষ্টিতে সরকারের পক্ষে পরামর্শক ও মার্কেটিং ফার্ম হিসেবে কাজ করে থাকে সিএস পার্টনারস।

২০২৪ সালের প্রতিবেদন তৈরিতে শুধু বিভিন্ন দেশের পাসপোর্ট র‌্যাংকিংয়ের ওপর নির্ভর না করে পাঁচটি বিষয় বেছে নিয়ে সেগুলো বিশ্লেষণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি।

নাগরিকত্বের মান নির্ণয়ে সিএস পার্টনারসের বেঁছে নেয়া পাঁচটি বিষয় হল- নিরাপত্তা ও সুরক্ষা, অর্থনৈতিক সুযোগ, জীবনমানের স্তর, বৈশ্বিক চলাচল ও অর্থনৈতিক স্বাধীনতা।

সূচকে বিষয়ভিত্তিক অবস্থানে দেখা যায়, নিরাপত্তা ও সুরক্ষায় ১২২তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশে। এ ছাড়া অর্থনৈতিক সুযোগে ৫৭, জীবনমানের স্তরে ১২০, বৈশ্বিক চলাচলে ১২৬ এবং অর্থনৈতিক স্বাধীনতায় বাংলাদেশ ১২৩তম স্থান পেয়েছে।

এবারের সূচকে ৪৯ দশমিক ৫ স্কোর নিয়ে বাংলাদেশের প্রতিবেশী ভারতের অবস্থান ১০৩তম, যেখানে ৩৮ দশমিক ১ স্কোর নিয়ে পাকিস্তান রয়েছে ১৪৫তম অবস্থানে।

সূচকের সবার উপরে আছে আয়ারল্যান্ড, যার স্কোর ৮৬ দশমিক ৬। ৮৬ স্কোর নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে সুইজারল্যান্ড, ৮৪ দশমিক ৬ স্কোর নিয়ে তৃতীয় ডেনমার্ক, ৮৪ স্কোর নিয়ে অস্ট্রেলিয়া চতুর্থ এবং ৮২ দশমিক ৭ স্কোর নিয়ে আইসল্যান্ড রয়েছে পঞ্চম অবস্থানে।

২৭ স্কোর নিয়ে সূচকে একেবারে নিচে ১৫৭তম অবস্থান পেয়েছে যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেন। তার ঠিক উপরে রয়েছে যুদ্ধসংকুল দেশ সিরিয়া, যার স্কোর ২৯। তার উপরে আছে সুদান ও আফগানিস্তান।